নিত্য নতুন খবরের পর খবর সেকেন্ডের সাথে বের হচ্ছে নতুন নতুন সব ব্রেকং, সঠিক তথ্য সবার আগে প্রতি সেকেন্ডের সাথে নয় বরং প্রাপ্ত তথ্য গুলো যাছাইয়ের পরে আপনাদের সামনে তুলে ধরাই আমাদের মুল লক্ষ। আপনাদের যে কোন তথ্য প্রয়োজনে আমাদের সাথেই থাকুন। অনলাইনের সব ভাইরাল তথ্য গুলো সত্যতা প্রমান বের করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করাই আমাদের কাজ। কোন তথ্য দেখেই সেটাকে মুল তথ্য ভেবে নিবেন না। একটু অপেক্ষা করুন এবং সঠিক ও প্রমানসহ তথ্য যাছাইয়ের পরে সেটা মেনে নিন।

আপনাদের সামনে সঠিক ও নির্ভুল তথ্য পরিবেশন করাই আমাদের মুল লক্ষ, কাজেই সার্বিক প্রমান ছাড়া কোন তথ্যকে সঠিক মনে করে গুজবে কান দিবেন না। আজকের যেই বিষয়’টি নিয়ে কথা বলবো তা নিচের লেখায় পড়ে নিন, ধন্যবাদ…

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বনবাড়িয়া গ্রামে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী কামরুল ইসলামকে (৪২) মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কামরুল ইসলাম সদর উপজেলার কালিয়াহরিপুরের বনবাড়িয়া গ্রামের আবুল হোসেন ডিলারের ছেলে।

আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) আনোয়ার পারভেজ লিমন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৯৯৮ সালে কামরুল ইসলামের সঙ্গে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার দিয়ারধানগড়া মহল্লার আব্দুল আজিজের কন্যা মুন্নী খাতুনের (৩২) বিয়ে হয়। বিয়ের সময় দুই লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়। বিয়ের পর থেকে আব্দুল আজিজ যৌতুকের জন্য মুন্নীকে প্রায়ই নির্যাতন করতো।

এরই জের ধরে ২০১২ সালের ১২ জুলাই তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে মুন্নীকে মারপিট করে শ্বাসরোধে হত্যা করে স্বামী কামরুল ইসলাম। এ ঘটনায় মুন্নী খাতুনের বড় বোন পারুল বেগম বাদী হয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন।

মামলার বাদী নিহতের বড় বোন পারুল বেগম রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে আসামির দ্রুত মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি জানান।

News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *